ভাসানচর থেকে পালানোর সময় কোম্পানীগঞ্জে ১৮ রোহিঙ্গা আটক


নোয়াখালী হাতিয়ার ভাসানচর থেকে পালানোর সময় ১৮ জন রোহিঙ্গাকে আটক করেছে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ।

শনিবার (২৭ আগস্ট) রাত ১১টার দিকে তাদের উপজেলার চরএলাহী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের বেড়ি বাঁধ সংলগ্ন এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটক রোহিঙ্গা হলেন, ভাসানচর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ৮৫ নং ক্লাস্টারের মো. তৈয়ব (৩৮) সামসিদা বেগম (৩২), মো. রেন ওয়ান (১৪) তাসমিন আরা (১২), ইয়াসমনি আরা (১০), মো. আনাস (৮), জেসমিন আরা (৬), মো. ইয়াছের (৪), মো. কাওছার (২), শাহারা বেগম (২৭), সুফিয়া (১২), সুমাইয়া (১০), শাবনুর (৬), ৮৬ নং ক্লাস্টারের ইয়াসমিন (৫), আজিজা (১৮), আজিজ খান (১), জাহিদ হোসেন (২২) ও ৭১ নং ক্লাস্টারের এবাদুল্লাহ (৩০)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার (২৭ আগস্ট) রাত ৮টার দিকে উপজেলার ৮নং চরএলাহী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের আলমগীরের দোকান এলাকায় কয়েকজন তরুণী শিশুসহ ঘোরাফেরা করছিলেন। বিষয়টি সন্দেহ হলে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে তারা নিজেদের রোহিঙ্গা বলে স্বীকার করেন। পরে তাৎক্ষণিক তাদের চর এলাহী ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে নিয়ে রাখা হয়। এরপর রাত সাড়ে ১১টার দিকে সেখান থেকে তাদের কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাদেকুর রহমান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‌‌দালালের মাধ্যমে ভাসানচর আশ্রয়ণ প্রকল্প থেকে চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাওয়া উদ্দেশে পালিয়ে আসেন আটক রোহিঙ্গারা। তাদের কারা সাগরপথে নৌকা করে এখানে নিয়ে এসেছে সে বিষয়ে খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী আটক রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে আইনগত প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে।


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.