ধর্মঘট প্রত্যাহার, ১২০ টাকা মজুরিতেই কাজে ফিরছেন চা শ্রমিকরা


ধর্মঘট প্রত্যাহার করে আগের দৈনিক মজুরি ১২০ মজুরিতেই কাজে ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চা শ্রমিকরা। আজ সোমবার থেকেই তারা কাজে যোগ দেবেন।

গতকাল রোববার (২১ আগস্ট) রাতে মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে এ সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসানের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন, মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ সুপার মো. জাকারিয়া, শ্রম অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক নাহিদুল ইসলাম, শ্রীমঙ্গল থানার ওসি মো. শামীর অর রশিদ তালুকদার এবং বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বিশ্বাস ও আস্থা রেখে চা শ্রমিকরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে ২২ আগস্ট থেকে কাজে যোগদান করবেন। আপাতত চলমান মজুরি ১২০ টাকা হারেই শ্রমিকরা কাজ করবেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান বলেন, চা শ্রমিকরা বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পরম শ্রদ্ধা করেন। তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত আজকের এই সিদ্ধান্ত। চা শ্রমিকরা প্রধানমন্ত্রীর ওপর আস্থা রেখে তাদের কর্মসূচি প্রত্যাহার করেছেন এবং কাজে ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নৃপেন পাল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আমাদের অভিভাবক। তিনি আমাদের যে সিদ্ধান্ত দেবেন আমরা তা মেনে নেব।’

উল্লেখ্য, দৈনিক মজুরি ৩০০ টাকা করার দাবিতে গত ১৩ আগস্ট থেকে টানা কর্মবিরতি পালন করেছেন শ্রমিকরা। পরে গত ২০ আগস্ট মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বিভাগীয় শ্রম দপ্তরের কার্যালয়ে চা শ্রমিক ও সরকারের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে নতুন মজুরি নির্ধারণ করা হয় ১৪৫ টাকা।

এরপর চলমান কর্মবিরতি প্রত্যাহার করার কথা জানান চা শ্রমিক নেতারা। কিন্তু সাধারণ চা শ্রমিকদের তোপের মুখে পড়ে এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন চা শ্রমিক ইউনিয়ন।


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.