রংপুর মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার নিয়োগ পেলেন সাবেক এসপি মিনা


চট্টগ্রাম জেলার সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) ও বাংলাদেশ পুলিশের পদোন্নতিপ্রাপ্ত উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) নুরেআলম মিনা বিপিএম (বার), পিপিএম রংপুর মেট্টোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কমিশনার পদে নিয়োগ পেয়েছেন। গত ৩০ জুন মঙ্গলবার মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের পুলিশ-১ শাখার উপ-সচিব ধনঞ্জয় কুমার দাস স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাকে আরএমপি কমিশনার হিসেবে পদায়ন করা হয়। এর আগে চলতি বছরের গত ১১ মে বুধবার এক প্রজ্ঞাপনে যে বাংলাদেশ পুলিশের ৩২ জন পুলিশ কর্মকর্তাকে অতিরিক্ত ডিআইজি থেকে ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রদান করা হয়। তাদের মধ্যে দক্ষ ও চৌকষ পুলিশ কর্মকর্তা মিনা অন্যতম।

জানা যায়, নুরেআলম মিনা বিগত ২০১৬ সালের ২০ জুলাই তারিখে পুলিশ সুপার হিসেবে চট্টগ্রাম জেলায় যোগদান করে ২০২০ সালের ২০ ফেব্রæয়ারি পর্যন্ত সময়ে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার হিসেবে দক্ষতা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। এর পরে অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি পেয়ে বর্তমানে তিনি পুলিশের ঢাকা রেঞ্জে কর্মরত।
নুরেআলম মিনা বিপিএম (বার), পিপিএম মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। জনবান্ধব সেবামুখী পুলিশিং নিশ্চিতকরণে কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমকে জোরদার করার পাশাপাশি ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় আর্তমানবতার সেবায়ও উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন তিনি। চট্টগ্রামের সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) ও বর্তমান পদোন্নতিপ্রাপ্ত ডিআইজি নুরেআলম মিনা বিপিএম (বার), পিপিএম, ১৯৭৬ সালে গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানাধীন এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ
থেকে বিএসএস (সম্মান) ও এমএসএস সম্পন্ন করে ২০তম বিসিএসের মাধ্যমে ২০০১ সালে বাংলাদেশ পুলিশে সহকারী পুলিশ সুপার পদে যোগদান করেন।
তিনি বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী রাজশাহীর সারদা থেকে বাস্তব প্রশিক্ষণ শেষে ২০০২ সাল থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন, বিলাইছড়ি, রাঙ্গামাটি ও মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া সার্কেল পদে ২০০৬ সাল পর্যন্ত দক্ষতা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৬ সালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতিক্রমে রেলওয়ে জেলা চট্টগ্রামে দায়িত্ব পালনসহ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার-নোয়াখালী জেলা, ডিএমপি, ঢাকার এডিসি (রমনা জোন), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার-কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম জেলায় অত্যন্ত সুনাম ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১২ পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতিক্রমে সুনামগঞ্জ জেলায় পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করে ২০১৩ সালের ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত এবং একই সালের ২৮ এপ্রিল থেকে ২০১৬ সালের ১৯ জুলাই পর্যন্ত সিলেট জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) পদে অত্যন্ত দক্ষতা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন নুরেআলম মিনা।
চাকুরী জীবনে নুরেআলম মিনা বিপিএম (বার), পিপিএম জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা বাহিনীর দারফুর সুদান মিশনে লজিস্টিক অফিসার হিসেবে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা পদক ২০০৮ এ ভূষিত হন।

তিনি বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী সারদায় প্রশিক্ষণ গ্রহণকালে দক্ষতা ও কৃতিত্বের স্বীকৃতি হিসেবে আইজিপি’স মেডেল ফর বেস্ট ইন একাডেমিক্স ২০০২-এ ভুষিত হন। পুলিশ সুপার, সুনামগঞ্জ হিসেবে অপরাধ নিয়ন্ত্রণে দক্ষতা ও সেবার স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৩ সালে “প্রেসডেন্ট পুলিশ মেডেল (পিপিএম)-সেবা” পদকে ভুষিত হন। ২০১৪ সালে “আইজিপি’স এক্সেমপ্লারি গুড সার্ভিসেস ব্যাজ” এ ভুষিত হন। চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে জীবনবাজি রেখে জঙ্গি দমনে অসম সাহসিকতার স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৮ সালে বাংলাদেশ পুলিশের সর্বোচ্চ সম্মাননা পদক “বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম)-অসম সাহসিকতা” এবং দক্ষতার সাথে অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, মহান জাতীয় সংসদ নির্বাচনে (২০১৮) আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও সেবামূলক কাজে কৃতত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৯ সালে “বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম)-সেবা” পদকে ভূষিত হন নুরেআলম মিনা। চাকুরী জীবনে তিনি বাস্তব প্রশিক্ষণ ছাড়াও বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে রয়্যাল পুলিশ কলেজ হতে “বেসিক কমার্শিয়াল ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন কোর্সে” প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রশ্নে আপোষহীন চৌকষ পুলিশ কর্মকর্তা নুরেআলম মিনা, বিপিএম (বার), পিপিএম, বিভিন্ন জেলায় মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গী দমনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। জনবান্ধব সেবামুখী পুলিশিং নিশ্চিতকরণে কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমকে জোরদার করার পাশাপাশি ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় আর্তমানবতার সেবায় উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। প্রবাসে কর্মরত চট্টগ্রাম জেলার বাসিন্দাদের পুলিশি সহায়তার জন্য তাঁর চালু করা ”প্রবাসী সহায়তা ডেস্ক” সর্বমহলে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে।

তিনি ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত ২ কন্যা ও ২ পুত্র সন্তানের জনক। বিভিন্ন পত্রিকা, ম্যাগাজিন ও বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশন কর্তৃক প্রকাশিত ডিটেকটিভে তাঁর প্রবন্ধ ও নিবন্ধ প্রকাশিত হয়। চট্টগ্রামের সাথে তাঁর পারিবারিক বন্ধন অনেক দিনের। মিনার শ্বশুর বাড়ি চট্টগ্রামের পটিয়া থানাধীন জিরি ইউনিয়নের কৈয়গ্রামে। তাঁর প্রয়াত দাদা শ্বশুর আহম্মদ মিয়া ব্রিটিশ পুলিশ অফিসার ছিলেন। নুরেআলম মিনার পরলোকগত শ্বশুর এটিএম তারেক পুলিশ সুপার ছিলেন। সে সুবাদে চট্টগ্রামে অনেক আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধু-বান্ধব রয়েছে মিনার। সাবেক পুলিশ সুপার ও ডিআইজি নুরেআলম মিনা রংপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার পদে নিয়োগ পাওয়ায় চট্টগ্রামের মানুষও আনন্দিত হয়েছেন, অনেকে মিষ্টি বিতরণও করেছেন। চট্টগ্রামের বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠন নুরেআলম মিনা বিপিএম (বার), পিপিএমকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.