পদ্মায় দুই ফেরির সংঘর্ষে নিহত ১


গভীর রাতে মাঝ পদ্মায় দুই ফেরির সংঘর্ষে এক পিকআপ চালকের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন। শনিবার রাত ৩টার দিকে শিমুলিয়া-মাঝিরকান্দি ফেরি রুটে শরীয়তপুরের জাজিরার কাছে এ ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনাকবলিত ফেরি দুটি হলো- ফেরি বেগম রোকেয়া ও ফেরি বেগম সুফিয়া কামাল। ফেরি দুটিতে এ সময় অর্ধ শতাধিক গাড়ি এবং দুই শতাধিক যাত্রী ছিলেন বলে জানায় পুলিশ।

নিহত পিকআপ চালকের নাম মো. খোকন (৪০), বাড়ি ঝালকাঠি জেলায়। তার গাড়ি ছিল ফেরি সুফিয়া কামালে।

লৌহজং থানার এএসআই শাখাওয়াত হোসেন বলেন, দুর্ঘটনায় এক পিকআপ চালকের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছেছে। লাশ তিন নাম্বার ফেরি ঘাটে নেয়া হয়েছে।”

এছাড়া আরও একজন চালক পদ্মায় ছিটকে পড়ে নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানান এএসআই শাখাওয়াত। তিনি বলেন, প্রচণ্ড বেগে মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই ফেরিরই কিছু অংশ দুমড়ে-মুচড়ে গেছে এবং ফেরি রোকেয়ায় পাঁচটি ব্যক্তিগত গাড়ি দারুণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বেগম রোকেয়া ফেরির মাস্টার মিন্টু রঞ্জন দাস বলেন, ‘নদীতে অনেক স্রোত ছিল। জাজিরা পয়েন্টের কাছাকাছি মোড়ে পৌঁছলে স্রোতের কারণে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেরি সুফিয়া কামালের সঙ্গে আমাদের ফেরির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে আমাদের ফেরিতে থাকা ৮-১০টি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পিকআপ চালক মারা গেছেন। এছাড়া নদীতে পড়ে একজন নিখোঁজ রয়েছেন।’

ফেরি সুফিয়া কামালের মাস্টার মোহাম্মদ হাসান বলেন, ‘নদীতে প্রচণ্ড স্রোতে টার্নিংয়ে নিয়ন্ত্রণ করা যায়নি। তাই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।’

এদিকে, “দুর্ঘটনার পর ফেরি দুটি যার যার গন্তব্যের ঘাটে নোঙ্গর করতে সক্ষম হয়েছে এবং তাতে আরও বহু যাত্রীর প্রাণ রক্ষা পেয়েছে” বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.