ইউক্রেন ছেড়ে পালিয়েছে ৫০ লাখের বেশি মানুষ: জাতিসংঘ


রাশিয়ার আগ্রাসনের পর থেকে ৫০ লাখের বেশি মানুষ ইউক্রেন ছেড়ে পালিয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর)। শুক্রবার (১৫ এপ্রিল)ইউএনএইচসিআর পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

জাতিসংঘের মতে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এবারই সবচেয়ে বড় শরণার্থী সংকটের মুখে ইউরোপ।

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআরের বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪৭ লাখ ৯৬ হাজার ২৪৫ জন ইউক্রেনীয় নাগরিক দেশ ছেড়েছে।

জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) বলছে তৃতীয় বিশ্বের প্রায় ২ লাখ ১৫ হাজার নাগরিকও প্রতিবেশী দেশে পালিয়েছে।

ইউএনএইচসিআর জানায়, প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৬ জন যারা ‍যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর ইউক্রেন ছেড়েছে। এ পর্যন্ত ২৭ লাখের বেশি ইউক্রেনীয় পোল্যান্ডে পালিয়ে গেছে।

এছাড়া ৭ লাখ ২৫ হাজার ইউক্রেনীয় শরণার্থী আশ্রয় নিয়েছে রোমানিয়ায়।

ইউএনএইচসিআরের পরিসংখ্যানের তথ্য মতে ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেন ছেড়েছে প্রায় ৬ লাখ ৪৫ হাজার ইউক্রেনীয়।মার্চ মাসে প্রায় লাখ এবং এপ্রিল মাসে এখনও পর্যন্ত ৭ লাখ ৬০ হাজারেরও বেশি ইউক্রেন ছেড়েছে। রোমানিয়া পৌঁছেছে ৭ লাখ ২৫ হাজোরেরও বেশি।

যারা পালিয়ে গেছে তাদের ৯০ শতাংশ নারী ও শিশু। ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সী পুরুষরা সাময়িক সময়ের জন্য সামরিক বাহিনীতে যোগ দেয়ায় যেতে পারেনি। ইউক্রেনের প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ শিশুদের তাদের বাড়ি থেকে জোরপূর্বক বাধ্য করা হয়েছে।

আইওএম জানায় ৭১ লাখ মানুষ তাদের বাড়ি ছেড়ে গেছে তবে তারা এখনও ইউক্রেনেই রয়েছে। রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণের আগে, রাশিয়া-অধিভুক্ত ক্রিমিয়া এবং পূর্বে রাশিয়াপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদী-নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলগুলি বাদ দিয়ে সরকারী নিয়ন্ত্রণাধীন অঞ্চলগুলিতে ইউক্রেনের জনসংখ্যা ছিল ৩ কোটি ৭০ লাখ।

সূত্র : এএফপি, এনডিটিভি


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.