শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দ্রুত খোলার বিষয়ে যাচাই করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ


শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুব দ্রুত খোলা যায় কি না, তা যাচাই করার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একইসঙ্গে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগে শিক্ষক-কর্মচারিদের টিকাদান নিশ্চিত করাও তাগিদ দেন প্রধানমন্ত্রী।

মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে আজ সোমবার গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এই নির্দেশনা দেন তিনি।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব ড. খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘আগামী পাঁচ থেকে ছয় দিনের মধ্যে এ নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক হবে। ওই বৈঠকে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগে শিক্ষক এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে অবশ্যই করোনার টিকা নিতে হবে।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে সাংবাদিকদের আরো বলেন, ‘মন্ত্রিসভার আজকের বৈঠকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে এরই মধ্যে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞসহ সবাইকে ডেকে নিয়ে বসে আলোচনা করতে বলা হয়েছে। কখন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে, কোন প্রক্রিয়ায় খোলা হবে, তা নিয়ে আলোচনা করতে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন। যাতে নিরাপত্তা ও শিক্ষা কার্যক্রম—দুটোই নিশ্চিত করা যায়।’

সচিব আরো বলেন, ‘যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আবাসিক, তাদের সুরক্ষা আগে কীভাবে নিশ্চিত করা যায়, সে বিষয়েও চিন্তা-ভাবনা করতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।’

আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা কত দিন নাগাদ হবে এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘আমরা এ সপ্তাহের শেষ নাগাদ না হলেও আগামী সপ্তাহের রবি অথবা সোমবার বসব। সেখানে আমরা একটা প্রস্তাবনা তৈরি করব। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলার ব্যাপারে মূলত পরিবেশ প্রিভিউ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

এ ছাড়া সচিব জানান, আন্তর্জাতিক ভ্যাকসিন ইনিস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করার চুক্তি অনুসমর্থন প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে। এ ছাড়া বাংলাদেশ পেটেন্ট আইন ২০২১, বাংলাদেশ শিল্প-নকশা আইন-২০২১ এবং বাংলাদেশ জাতীয় আর্কাইভস আইনের খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে।


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.