প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ


দৈনিক আজাদীসহ কয়েকটা অনলাইন নিউজে গত ১৫ ও ১৬ অক্টোবর আমার বিরুদ্ধে পৌর মেয়রের ভিত্তিহীন অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন বোয়ালখালীর পৌর প্রকৌশলী মো: কামরুজ্জামান।

তিনি বলেন, প্রকাশিত সংবাদটি মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। সংবাদে উল্লিখিত বোয়ালখালী পৌরসভার তিন কোটি বিশ লাখ টাকার দুই প্রকল্পের কাজ লটারি ছাড়াই পেয়ে গেল উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। কিন্তু এসব কিছুই হয়নি।

গুরত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পটি গত ২৮ জুন তারিখে অনুমোদন হয়ে এবং ২৬ আগষ্ট তারিখে টেন্ডার লাইভে আসে, ১৪ সেপ্টেম্বরে টেন্ডার লাস্ট ডপিং এবং অপেন করা হয়েছে। এতে একটি টেন্ডারে ২৫ অন্যটিতে, ২৩ ফরম পাওয়া যায়, বিধি মোতাবেক, ইজিপিতে যাচায়-বাঁচায় করে গত ১৫ আক্টোবর তারিখে ইজিপিতে টেন্ডার লটারি হয় লটারিতে কাজ দুটি মেসার্স শরমিন এন্টারপ্রাইজ লটারিতে বিজয়ী হয়।

এতে নিয়মের ব্যার্থয় ঘটেনি, এখানে মেসাস কে জি এন্টারপ্রাইজ মেয়রের নিকট জানতে চাইলে মেয়র পৌর প্রকৌশলী সাথে কোন যোগাযোগ না করেই লটারি ছাড়া আওয়ামী লীগ নেতাকে কাজ দিয়ে দিয়েছে বলে কিছু বিএনপি পন্থি ঠিকাদার দিয়ে কিছু অনলাইন পোটাল এবং দৈনিক আজাদী পত্রিকায় অসত্য নিউজ প্রকাশ করেছে যার প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য যে, মেয়রের ছেলে জুয়েল এবং তার সিন্ডিকেট কে কাজ দুটি পাইয়ে দেয়ার জন্য আমাকে চাপ প্রয়োগ করছিলো। মেয়র মহোদয় তা করাতে না পেরে আমাকে সামাজিকভাবে হেয় ও বিতর্কিত করার জন্য উদ্দেশ্যে প্রণোদিতভাবে মিথ্যা বানোয়াট বক্তব্য দিচ্ছেন।

বি.দ্রঃ মেয়রের ছেলে ও তার সিন্ডিকেট এক কোটি ৭৮ লক্ষ টাকার কাজ করছে বিভিন্ন ওয়ার্ডে (৭,৮,৯) এখনো চলমান আছে, পৌর এলাকায় সবাই জানে যাহা নিয়ে সবত্র আলোচনা-সমালোচনা চলমান এতে পৌর ঠিকাদার গন ক্ষুদ্ধ। এই অসত্য বক্তব্য দিয়ে মেয়র এবং কিছু স্বার্থান্বেষী মহলের প্ররোচনায় এই মিথ্যা সংবাদের অবতারণা করা হয়েছে শুধু আমাদের সামাজিকভাবে হেয়পতিপন্ন করার জন্য। প্রকৃতপক্ষে ঘটনাটি সঠিক নয়। সরকারী বিধি মোতাবেক ইজিপি সিস্টেমে লটারিতে কাজ দুটিতে মেসার্স শরমিন এন্টারপ্রাইজ বিজয়ী হয়ে কাজ পায়।


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.