বিশ্বব্যাপী ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৩ লাখ ১০ হাজারের বেশি


সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমতে শুরু করলেও তা হঠাৎ করেই আবার বাড়তে শুরু করেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩ লাখ ১০ হাজার ৭১৩ জন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে।

এই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৮০৯ জনের। সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৩২ হাজারেরও বেশি মানুষ।

ওয়ার্ল্ডোমিটার জানিয়েছে, শনিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৮৬ লাখ ৫৭ হাজার ০০৯ জন। মৃতের সংখ্যা ৯ লাখ ১৯ হাজার ৭১৫ জন। সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন দুই কোটি ৫ লাখ ৮৪ হাজার ২২০ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে সংক্রমণ ও মৃত্যু বেশি হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটির সবকটি অঙ্গরাজ্যেই হানা দিয়েছে করোনা। যুক্তরাষ্ট্রের পরেই সংক্রমণে এগিয়ে রয়েছে লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল, ভারত, রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, পেরু, মেক্সিকো, কলম্বিয়া, চিলি এবং স্পেন।

আক্রান্ত ও মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের ধারে-কাছে নেই কোনো দেশ। সেখানে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬৬ লাখ ৩৬ হাজার ২৪৭ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১ লাখ ৯৭ হাজার ৪২১ জন।

সম্প্রতি করোনা আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে আসা প্রতিবেশি দেশ ভারতে শনাক্ত হয়েছে ৪৬ লাখ ৫৭ হাজার ৩৭৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৭৭ হাজার ৫০৬ জনের।

তৃতীয় অবস্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় ৪২ লাখ ৮৩ হাজার ৯৭৮ জন আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৩০ হাজার ৪৭৪ জনের।

চতুর্থ অবস্থানে থাকা রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০ লাখ ৫১ হাজার ৮৭৪ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১৮ হাজার ৩৬৫ জন।

সংক্রমণে ৫ম অবস্থানে থাকা পেরুতে আক্রান্ত ও মৃত্যু বাড়ছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৭ লাখ ১০ হাজার ৬৭ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩০ হাজার ৩৪৪ জনের।

প্রাণঘাতী ভাইরাসটির সংক্রমণ বাড়ছে বাংলাদেশেও। ১৫ নম্বর অবস্থানে থাকা বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ৩ লাখ ৩৪ হাজার ৭৬২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। দেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৬৬৮ জনের। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন দুই লাখ ৩৬ হাজার ২৪ জন।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ, অঞ্চল এবং দুটি আন্তর্জাতিক প্রমোদতরীতে ছড়িয়েছে।

গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.