কন্ঠ সৈনিক আব্দুল জব্বারের তৃতীয় মৃত্যু বার্ষিকী আজ


খোকন মজুমদার রাজীবঃ বাংলাদেশের হৃদয় তুমি- তমি বাংলার পিতা, এখানে আমার পদ্মা মেঘলা, হাজার বছর পরে-আবার এসেছি ফিরে, এভাবে অসংখ্য গান উপহার দেওয়া সংগীত জগতের অভিধান স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের প্রয়াত কন্ঠ সৈনিক আব্দুল জব্বারের তৃতীয় মৃত্যু বার্ষিকী আজ।

তিনি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধাদের মনোবল ও প্রেরণা যুগাতে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে সালাম সালাম হাজার সালাম ও জয় বাংলা বাংলার জয়সহ অংসখ্য গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। তার গানে অনুপ্রাণিত হয়ে অনেকেই মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেছিলেন। এছাড়া যুুদ্ধের সময়কালে তিনি প্রখ্যাত ভারতীয় কণ্ঠশিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে মুম্বাইয়ের বিভিন্ন স্থানে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পক্ষে জনমত তৈরিতে কাজও করেছিলেন। তৎকালীন সময়ে কলকাতাতে অবস্থিত বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধাদের ক্যাম্প ঘুরে হারমোনি বাজিয়ে গণসঙ্গীত পরিবেশন করেছেন যা মুক্তিযুদ্ধাদের প্রেরণা যুগিয়েছে।

স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ে ১৯৭১ সালের পর বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে এদেশের মানুষকে উপহার দিয়েছেন অসংখ্য জনপ্রিয় গান, যার কন্ঠ সুর কথা মানুষের হৃদয়ে এখনো গেঁথে আছে। এখনো তার গাওয়া গান-” তুমি কি দেখেছো কভু, জীবনের পরাজয়” বিদায় দাও গো বন্ধু তোমরা, এবার দাও বিদায়” শিকল ছিঁড়িতে না পারে খাঁচা, ভাঙ্গিতে না পারে” জীবনো আঁধারে, পেয়েছি তোমারে, চিরদিন পাশে থেকো বন্ধু” পিচ ঢালা এই পথটারে যখন দেখেছে” এভাবে চলচ্চিত্রের মাধ্যমে এদেশের মানুষকে অনেক গান উপহার দিয়েছেন শিল্পী আব্দুল জব্বার, যা এক মুহূর্তে বলে শেষ করার মতো নয়।

এই গুণী শিল্পী ২০১৭ সালের ৩০ আগষ্ট কিডনি হার্ট সহ বিভিন্ন জটিলতা রোগ নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সঙ্গীতাঙ্গনের সকলকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে পারি জমান না ফেরার দেশে।
তার স্মরণে বলবো ” আমায় যদি তুমি বন্ধু মানো, কিছু জ্বালা আমায় দাও……, এক বুক জ্বালা নিয়ে বন্ধু তুমি কেন একা বয়ে বেড়া ও…….। তার প্রতি রইলো আমার বিন্ম্র শ্রদ্ধা।


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.