হাটহাজারী উপজেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে হতদরিদ্রদের ৬টি ঘর হস্তান্তর


চট্টগ্রাম হাটহাজারী উপজেলার ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের মনাই ত্রিপুরা পাড়ার ছয় অবহেলিত হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ছয়টি ঘর উপহার স্বরুপ হস্তান্তর করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রুহুল আমীন।

শুক্রবার (৩১ জুলাই ) দুপুর ১২ টার সময় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোঃ ইলিয়াস হোসেন এর নির্দেশনায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার স্বরুপ এ ছয়টি ঘর হস্তান্তর করা হয় বলে জানা যায়।

এবিষয়ে জানতে চাইলে হাটহাজারী উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রুহুল আমীন দৈনিক প্রিয় বাংলাদেশ কে বলেন, এক সময় ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের মনাই ত্রিপুরা পল্লীর লোকজন ও জনপদ ছিলো অবহেলিত। এই ত্রিপুরা পল্লী এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার “আমার গ্রাম আমার শহর” শ্লোগানে পরিবর্তিত এক জনপদ ও বাস যোগ্য পল্লী।

এখন এই পল্লী যোগাযোগ,বিদ্যুৎ, শিক্ষা,স্বাস্থ্য,পানি ও স্যানিটেশন, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির ভাতা সহ সবকিছুই এখানে এখন হাতের নাগালে।পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রীর “একজন মানুষও গৃহহীন থাকবেনা” এই নির্দেশনা বাস্তবায়নের পালা।

তিনি আরও বলেন, এই পল্লীর পাহাড়ের পাদদেশে জরাজীর্ণ ঘরে বসবাস ৬ পরিবারের।একটু বৃষ্টি হলেই ঘরের ভিতর পানি ,নাই ঘরের বেড়া, দরজা জানালা, প্রায় না থাকার মতই অবস্থা। তাছাড়া পাহাড় ধ্বসের ঝুঁকিতো আছেই এমন ৬ পরিবার।এ ছয় পরিবারকে উপজেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে ৬ টি ঘর। এর আগেও এই পল্লীর ছয় পরিবারকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে উপহার দেওয়া হয়েছিল ছয়টি ঘর। তাদের বসবাস যোগ্য এই ঘর উপহার দিয়ে এতে করে বাস্তবায়ন করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই উদ্যোগ।

তিনি আরও বলেন, আগামীকাল ১ আগষ্ট ঈদুল আজহার ঠিক আগেই, আজ ৩১ জুলাই তারা নতুন ঘরে উঠেছে এতে আমি খুবই আনন্দিত।এ সময় তিনি হতদরিদ্র এই ৬ পরিবারসহ এই পল্লীর ৫৭ পরিবারের সাথে গত দেড় বছর ধরে আনন্দ ভাগাভাগির অংশ হওয়াটা খুবই আনন্দের উল্লেখ করে পল্লীর সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা, ঈদ মোবারক জানান।


আরও পড়ুন

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.